বিএনপি নেতিবাচক রাজনীতি করায় মানুষ তাদের ভোট দেয় না: কাদের

0
27

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি নেতিবাচক রাজনীতি করে বলেই তাদেরকে মানুষ ভোট দেয় না। আওয়ামী লীগ ভালো কাজ করে বলে সাধারণ মানুষ বিপুল ভোটে আওয়ামী লীগকে বিজয় করেছে।

রোববার দুপুরে নোয়াখালী হাতিয়া উপজেলার সরকারি দ্বীপ কলেজ মাঠে এক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সাধারণ মানুষ ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগকে যে সম্মান দেখিয়েছেন- আওয়ামী লীগও উন্নয়নের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের সেই সম্মানের উপযুক্ত প্রতিদান দেবে।

দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, সাধারণ মানুষকে অসুখ-বিসুখে সাহায্য করতে হবে। না হয় উন্নয়ন ম্লান হয়ে যাবে। একজন মানুষ তিনি যদি আওয়ামী লীগ না-ও হন, তার বিপদে এগিয়ে আসতে হবে। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আওয়ামী লীগ উন্নয়নের সরকার। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলেই উন্নয়ন করে। গত ১০ বছর ঢাকাসহ সারা দেশে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। আওয়ামী লীগ উন্নয়ন করে বলেই ভোটাররা বার বার ভোট দিয়ে ক্ষমতায় আনে।

নোয়াখালীর হাতিয়াবাসীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমি সব সময় আপনাদের পাশেই থাকব। উন্নয়নের ধারাবাহিকতা উপজেলায়ও অব্যাহত থাকবে। আগামীতে হাতিয়া উপজেলাকে বিদ্যুতায়ন করব।

মন্ত্রী বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে হাতিয়ার উত্তর-পশ্চিম-পূর্ব দিকে বিশাল এলাকায় মেঘনা নদী ভাঙনে হাজার হাজার মানুষ ভূমিহীন হয়েছে। একই সঙ্গে তাদের পৈত্রিক জমি নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। আওয়ামী লীগ সরকার হাতিয়া নদীভাঙন প্রতিরোধ করতে ব্যাপক পরিকল্পনা নিয়েছে।

তিনি বলেন, যেসব মানুষ তাদের বসতভিটা, ফসলের জমি ও গাছপালা হারিয়ে ভূমিহীন হয়েছেন। সেসব ভূমিহীনদের স্বনির্ভর করার ব্যবস্থা নেয়া হবে। মেঘনা নদীভাঙনের শিকার অসহায় লোকদের আহাজারি দেখে আমার দুঃখ হয়। এসব অসহায় লোকদের স্বনির্ভর করতেই হবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, হাতিয়ায় আওয়ামী লীগের মধ্যে বিভেদ-মারামারি ছিল ঢাকার সংবাদপত্রের প্রতিদিনের শিরোনাম। এখন এখানে ঐক্যের সুবাতাস বইছে। এই ঐক্য করতে বাহির থেকে কেউ আসতে হয়নি, হাতিয়ার নেতারাই বিভেদ ভুলে গিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন। নৌকাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করেছেন। এখন হাতিয়ার উন্নয়ন থেমে থাকবে না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশে হাতিয়া অন্ধকারে থাকতে পারে না। হাতিয়ায় এসেই বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে বলেছি। দ্রুততম সময়ের মধ্যে হাতিয়ার বিদ্যুৎ ব্যবস্থার উন্নয়নে তিনি পদক্ষেপ নেবেন।

তিনি বলেন, হাতিয়ার প্রধান সমস্যা নদীভাঙন রোধে ব্লকবাঁধ নির্মাণ প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। আগামী ১৫ দিনের মধ্যেই প্রকল্পের কাজ শুরু হবে।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী হাতিয়ার প্রধান সড়ককে ১৮-২৪ ফুটে উন্নীত করার ঘোষণা দেন। এ বিষয়ে শিগগির প্রকল্প জমা দেয়ার জন্য উপস্থিত প্রকৌশলীকে নির্দেশ দেন।

এ ছাড়া এলাকার অন্যান্য গ্রামীণ অবকাঠামোর উন্নয়নের পাশাপাশি নিঝুম দ্বীপকে আধুনিক এলাকা হিসেবে গড়ে তোলার আশ্বাস দেন মন্ত্রী।

এর আগে মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের হাতিয়া ভাঙন কবলিত নলচিরা এলাকা পরিদর্শন করেন। তিনি নলচিরা ঘাট এলাকায় দুঃস্থদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করেন।

এ ছাড়া মন্ত্রী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নবনির্মিত বাংলো উদ্বোধন করেন। এ সময় পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম, জেলা প্রশাসক তন্মদয় দাস, জেলা পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক অলী উল্লার সভাপতিত্বে জনসভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম, এ আসনের এমপি আয়েশা ফেরদাউস, এমপির স্বামী মোহাম্মদ আলী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ, হাতিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সাইফ উদ্দিন আহমেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here